আন্তর্জাতিক গ্যালারী

আমদানি নয়, ১০১ সমরাস্ত্র নিজেই তৈরি করবে ভারত

নিউজ ডেস্কঃ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ‘আত্মনির্ভর ভারত’ স্লোগানকে বাস্তবায়িত করতে রোববার( ৯ আগস্ট) প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে বড়সড় ঘোষণা দিলেন দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। টুইটারে তিনি লেখেন ‘১০১ রকমের প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম আমদানির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।’
রাজনাথ জানান, ‘বিদেশ থেকে ১০১টি অস্ত্র সামগ্রী আমদানির উপর জারি করা এই নিষেধাজ্ঞা ২০২০-২০২৪ সালের মধ্যে পর্যায়ক্রমে নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করা হবে।’ ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পর্যায়ক্রমিকভাবে ওই তালিকা প্রকাশ করবে।
তিনি আরও বলেন, ‘এই সিদ্ধান্তটি ভারতীয় প্রতিরক্ষা শিল্পকে তাদের নিজস্ব নকশা এবং উন্নয়ন ক্ষমতা ব্যবহারের সুযোগ করে দেবে। সশস্ত্র বাহিনীর প্রয়োজনীয়তা মেটাতে ডিআরডিও-র ডিজাইন করা এবং তৈরি প্রযুক্তি গ্রহণ করে নিষিদ্ধ তালিকার সরঞ্জামগুলি তৈরির দুর্দান্ত সুযোগ পাবে দেশীয় সংস্থাগুলি।’
নিষিদ্ধ তালিকায় থাকা প্রতিরক্ষা সরঞ্জামগুলির মধ্যে রয়েছে কামান থেকে জাহাজ বিধ্বংসী ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র, হাল্কা যুদ্ধবিমান, আর্টিলারি বন্দুক, অ্যাসল্ট রাইফেলস, করভেটস, সোনার সিস্টেম, লাইট কমব্যাট হেলিকপ্টার, রাডার -সহ আরও অনেক কিছুই।
রাজনাথ বলেন, “সমস্ত ক্ষেত্রেই ভারত আত্মনির্ভরতার পথে এগিয়ে চলেছে। বিদেশ থেকে প্রত্যেক বছর কয়েক কোটি টাকার ব্যয়ে একাধিক প্রতিরক্ষার সামগ্রী আমদানি করা হয়। সেইসব অস্ত্র এ বার ভারতেই তৈরি করা হবে”।
তিনি আরও বলেন, “সশস্ত্র বাহিনীর তিন শাখার জন্য ২০১৫ সালের এপ্রিল থেকে ২০২০ মধ্যে অস্ত্র ও সরঞ্জাম সরবরাহের প্রায় ২৬০টি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। যার মোট অঙ্ক প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ কোটি টাকা। ভবিষ্যতে আরও কিছু অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম আমদানি বন্ধ করা হতে পারে বলেও তাঁর ইঙ্গিত। সামরিক উৎপাদনের ক্ষেত্রে নির্ধারিত সময়সীমা বজায় রাখার বিষয়টিতে গুরুত্ব দেওয়া হবে”।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *