শুক্রবার, ডিসেম্বর ৩

থাকবে না এই শীত ভাব

নিউজ ডেক্সঃ হেমন্তের পরই শীতকাল। সেই হিসেবে আজ শুক্রবার (২৫ অক্টোবর) হেমন্তের দশম দিন। দু’দিনের বৃষ্টিতে তাপমাত্রা কমে যাওয়ায় অনেকেই ভেবে নিয়েছে শীত বুঝি এল। যদিও শীতের আগমনী বার্তা শুরু হয় হেমন্তেই। কমে এসেছে রাত ও দিনের তাপমাত্রার তফাৎও। তবে বৃষ্টি শেষে রাজধানীতে এই শীত শীত ভাব থাকবে না। তখন দিন ও রাতের তাপমাত্রা বাড়বে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের কারণে হওয়া বৃষ্টিতে শীত ও বর্ষার আমেজ তৈরি হয়েছে। আগামী দুই দিনের মধ্যে বৃষ্টি শেষ হওয়ার মধ্য দিয়ে এ আমেজও বিদায় নিতে পারে। তবে সিলেট অঞ্চলে এ আমেজ কিছুটা থেকে যেতে পারে। আর বৃষ্টি বিদায় নিলেও রাতে ঠাণ্ডা থেকে যেতে পারে রংপুর বিভাগে।

আবহাওয়াবিদ এম রুহুল কুদ্দুস বলেন, ‘আগামীকাল শনিবারও বৃষ্টি হতে পারে। সিলেট অঞ্চল ছাড়া রোববার থেকে বৃষ্টি দেশের আর কোথাও নাও থাকতে পারে। তবে নভেম্বরের ১৫ তারিখের শীত নামতে পারে’

শীত অনুভূত হওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ঢাকায় এখন দিনের তাপমাত্রা ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মতো চলে এসেছে। দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় কাছাকাছি। এ তাপমাত্রায় খুব স্বাভাবিকভাবেই শীত অনুভূত হয়। রংপুর বিভাগে কিছুদিন আগে রাতের তাপমাত্রা অনেক কমে গিয়েছিল। বৃষ্টির পর দেশের অন্য অঞ্চলে না হলেও রংপুর বিভাগে রাতে শীত অনুভূত হতে পারে। তবে দিনের বেলায় তা মনে হবে না।’

শুক্রবার দুপুর ১টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদী বন্দরের সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, রংপুর, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, সিলেট, ঢাকা, ফরিদপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালি, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার অঞ্চলসমূহের ওপর দিয়ে পশ্চিম/দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫-৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি/বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দর সমূহকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

শুক্রবার দিনের পূর্বাভাসে (সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত) বলা আছে, অন্ধ্র উপকূলের অদূরে পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে বর্তমানে উপকূলীয় অন্ধ্র প্রদেশ-উড়িষ্যা এবং পাশ্ববর্তী এলাকায় অবস্থান করছে। লঘুচাপের বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এর প্রভাবে রাজশাহী, রংপুর, খুলনা, বরিশাল, ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *