শনিবার, জুলাই ২

চীন সীমান্তে ১৪ দিন ধরে নিখোঁজ ভারতীয় দুই সেনা

নিউজ ডেক্সঃ ভারতের অরুনাচল প্রদেশের চীন সীমান্তে নিখোঁজ হয়েছেন ভারতীয় সেনার দুই জওয়ান। ১৪ দিন ধরে তাদের কোনো সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না। খবর দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া।সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে এক নিখোঁজ জওয়ানের পরিবারকে জানানো হয়েছে, তারা মনে করছে ওই দুজন সম্ভবত নদীতে ডুবে গিয়ে মারা গেছেন। যদিও তা মানতে নারাজ পরিবার।
গত ২৮ মে থেকে কোনো খোঁজ মিলছে না হরেন্দ্র নেগি ও প্রকাশ সিংহ রানা নামের দুই ভারতীয় জওয়ানের। তারা অরুণাচলের ভারত-চীন সীমান্তের থাকলা পোস্টে কর্মরত ছিলেন। ইতোমধ্যে নিখোঁজ দুই জওয়ানের খোঁজে অভিযান শুরু হয়েছে। সীমান্ত এলাকায় তো বটেই, আকাশপথেও তল্লাশি চালানো হচ্ছে বলে জানা গেছে।
প্রকাশ সিংহের স্ত্রী জানিয়েছেন, তার কাছে সেনাবাহিনীর তরফে দুটি ফোন এসেছিল। প্রথম ফোনটি আসে ২৯ মে। সে দিন তাকে জানানো হয়, ২৮ মে থেকে তার স্বামীর কোনো খোঁজ মিলছে না। দ্বিতীয় ফোনটি আসে ৯ জুন, সে দিন বলা হয়, সেনাবাহিনী মনে করছে, দুজন জওয়ানই নদীতে ডুবে গিয়েছেন।
আরও পড়ুন: তীব্র গরম-ভয়াবহ পানি সংকটে বিপর্যস্ত ভারতযদিও এটি মানতে নারাজ জওয়ানের পরিবার। হরেন্দ্রর স্ত্রী পুনম তার স্বামীর নদীতে ডুবে যাওয়ার তত্ত্বে বিশ্বাস করতে পারছেন না। তার প্রশ্ন, দুজন মানুষ নদীতে ডুবে যাবেন, কেউ টের পেলেন না? জানা যায়, হরেন্দ্র ও পুনমের এক বছরের একটি শিশুসন্তান আছে।
শুক্রবার (১০ জুন) প্রকাশের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন উত্তরাখণ্ডের সাহসপুরের বিজেপি বিধায়ক সহদেব সিংহ পুন্ডির। নিখোঁজ সেনার সৈনিক কলোনির বাড়িতে গিয়ে সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে সহদেব বলেন, ‘‘আমি প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে এ ব্যাপারে কথা বলেছি। তিনি সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন।’’ নিখোঁজ জওয়ানের ব্যাপারে সমস্ত তথ্য কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রীকে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।
আরও পড়ুন: ভারতীয় সেনাবাহিনীর শীর্ষ পদে নিয়োগে বড় পরিবর্তনউল্লেখ্য, গত বছর রহস্যজনকভাবে অরুণাচল প্রদেশ থেকে রহস্যজনকভাবে এক কিশোর নিখোঁজ হয়ে যান। দীর্ঘ খোঁজাখুজি শুরু হয়। শেষমেশ সীমান্তের ওপার অর্থাৎ চীনের মাটি থেকে ওই কিশোরকে উদ্ধার করা হয়। কেন্দ্রীয় হস্তক্ষেপে এবং একাধিক পতাকা বৈঠকের মাধ্যমের ওই কিশোরকে ভারতে ফিরিয়ে নিয়ে আসা হয়।
ওই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আবার একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। তবে নিখোঁজ দুই জওয়ান চীনের দিকে চলে গিয়েছেন কি না তা এখনই স্পষ্ট নয় বলেই জানা যাচ্ছে। তবে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে সেনাস্তরে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.