শনিবার, জুলাই ২

অবিশ্বাস্য হলেও সত্য জটিল রোগ নিরাময় হচ্ছে ভারতীয় চিকিৎকের পরামর্শে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসায়

নিউজ ডেস্কঃ অবিশ্বাস্য হলেও সত্য সকল প্রকার জটিল রোগ নিরাময় হচ্ছে ঠাকুরগাঁওয়ের হোমিওপ্যাথিক গবেষনা ও স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রে। রোগীদের সেবা প্রদানে জেলা শহরের বড়মাঠের পাশে অবস্থিত হোমিওপ্যাথিক গবেষনা ও স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রের পরিচালক ডাঃ কামাল হোসেন ভারতের চিকিৎসক অধ্যাপক ডাঃ মিলন সেনগুপ্তের মাধ্যমে জেলার মানুষের চিকিৎসা সেবা প্রদানের মাধ্যমে রোগ নিরাময়ে ভুমিকা পালন করছেন। যা ইতোমধ্যে সারা ফেলেছেন।
তবে করোনার প্রকোপ বাড়ায় অধ্যাপক ডাঃ মিলন সেনগুপ্ত এখন নিয়মিত অনলাইনে চিকিৎসা সেবা প্রদান করছেন। পাশাপাশি ঢাকা থেকে ডাঃ আব্দুল মান্নান ও ডাঃ জয়নাল আবেদিন সপ্তাহের শনি, সোম, মঙ্গল ও বুধবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত চিকিৎসা সেবা প্রদান করছেন।
স্বল্প সময়ে জেলার কয়েক হাজার মানুষ হোমিওপ্যাথিক গবেষনা ও স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রে চিকিৎসা সেবা নিয়েছেন। চিকিৎসা নেয়া প্রায় শতভাগ রোগী ভাল হয়েছেন বলে সেবা নিতে মানুষের আগ্রহ বেড়েছে।
দুর দুরান্ত থেকে সেবা নিতে আসা বেশকিছু রোগীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, প্রচারের জন্য নয়। বাস্তবতা আমরা এক সময় হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসার প্রতি অনিহা প্রকাশ করলেও এখন আস্তা বেড়েছে। জটিল কিছু রোগ যেমন পাইলস্ টিউমার, ব্রণ,কিডনিতে পাথর, মুত্রথলিতে পাথর, জরায়ুতে টিউমারসহ বেশকিছু রোগের চিকিৎসা নিয়েছি। ভাবতে অবাক লাগছে কারো কারো এক সপ্তাহে আবারো কারো দু থেকে তিন সম্পাহের মধ্যে রোগ নিরাময় হয়েছে। অথচ এসব রোগ নিরাময়ের জন্য ঢাকাসহ অনেক জেলায় ঘুরে বেড়াতে হয়েছে। হয়তো বিশ্বাস যোগ্য বলে মনে হবে না। কিন্তু বাস্তব সত্য মানুষ উপকৃত হচ্ছেন।
এ বিষয়ে হোমিওপ্যাথিক গবেষনা ও স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রের পরিচালক ডাঃ কামাল হোসেন জানান, জেলার মানুষের চিকিৎসা সেবার কথা চিন্তা করে ভারত থেকে অধ্যাপক ডাঃ মিলন সেনগুপ্তকে আমন্ত্রন জানিয়ে সেবা প্রদান করেছি। এখন করোনার কারনে তিনি অনলাইনে পরামর্শ দিচ্ছেন। এছাড়া নিয়মিত রোগী দেখছেন ঢাকার আরো কয়েকজন চিকিৎসক। রোগীরা সেবা নিয়ে সুস্থ্য হচ্ছে এটাই আমার বড় পাওয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published.